মাও সে তুং

সৌরভ মাহমুদ

 মাও সে তুং-কে নতুন করে পরিচয় করার তেমন কিছু নেই। গণচিন বা সমাজতান্ত্রিক চিন এর প্রতিষ্ঠাতা এই মহান নেতা ছিলেন পৃথিবীর ইতিহাসের শ্রেষ্ঠ বিপ্লবীদের একজন। রাজনৈতিকভাবে নিজের জীবনকে মানুষের প্রতি ব্যায় করার পাশাপাশি লিখেছেন কবিতাও। তার কবিতায় যেমন রয়েছে রক্তে মিশে থাকা বিপ্লব, যুদ্ধ, প্রেম এবং তার নিজ ভূমি চিনের পাহাড়, নদী ও প্রকৃতির সাথে তার গভীর সম্পর্কের পরিচয়।

 

———

 

মাও সে তুং এর দুটি কবিতা-

 

হলুদ সারসের মিনার

মুল: ইয়োলো ক্রেন টাওয়ার

ভাষান্তর: সৌরভ মাহমুদ

 

ধীরে ধীরে বয়ে চলে নয়টি জলের প্রবাহ, মাটির ওপর দিয়ে-

গাঢ় ও গভীর দাগকেটে দক্ষীণ থেকো উত্তরে।

ঝাপসা আবছায়া ঘিরে ধরে কুয়াশার জল-

কচ্ছপ এবং সাপ বন্ধ করে দেয় বৃহৎ নদীর চলাচল।

 

হলুদ সারস উড়ে যায়, কে জানে কোথায় যায়?

শুধু এই মিনার দাড়িয়ে থাকে, আগুন্তকদের আস্তানা হয়ে রয়।

উত্তাল প্রবাহের দিকে চেয়ে অঙ্গিকার হাতের করি মদিরার সাথে,

এইসব ঢেউয়ের প্রতি আমার হৃদয়ের স্পন্দনও যায় বেঁজে।

——-

শিংকাংশান

মুল: শিংকাংশান

ভাষান্তর: সৌরভ মাহমুদ

 

পাহাড়ের নিচে উড়ে আমাদের পতাকা, আমাদের নিশানা,

চূড়া থেকে ভেসে আসে ঢোল ও যুদ্ধের বাঁজনা।

শত্রুর পরিবৃত্ত আমাদের করে তুলে হাজারগুণ শক্ত,

আমাদের প্রতিরোধ হয়ে আছে লৌহবর্মের তুলনা।

 

আমাদের প্রচেষ্টা পরিণত হয় দুর্গে- ইচ্ছাশক্তির জোড়ে,

বন্দুকের গর্জন শোনা যায় হুয়াংইয়াংশি’র চিৎকারে,

অতঃপর সংবাদ আসে- শত্রু পালিয়েছে রাতের আধারে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *