সাবান নির্ভর কবিতা

অরবিন্দ চক্রবর্তী


 

মোড়ক ফসকে বেরিয়ে এলে- এটুকু ঠিক আছে

সাবানের ধারণা থেকে বেরুলে তোমাকে মানাতে পারি না

ঘর ও জানালাভিত্তিক বিবেচনা করা যাক,

পাশাপাশি আলোচনা থাকাও ভালো ।

 

তুমি তো জানো

বেসিনে জারুল পাতার জোসনা নিয়ে কাউকে বাসনা রাখা যায়

তারপর যা হয়, হতে থাকে…

 

নিভে যাওয়া কথার বারুদ বুদবুদ থেকে যা হবে, সেটুকু ফেনা

আরটুকু ঢেউ, পুরোটাজুড়ে তুমি এবং খানিক আহত বার্তা

বাকিটা পরিণত ফলবাচক আমি

বনমর্মরের দস্যুতা করে তোমার বুকে আঁচড়ে যাবে-

স্মৃতিনির্ভর ব্যক্তিগত বুলডোজার ।

 

 

শীতের হাড়নামচা

অরবিন্দ চক্রবর্তী


 

সারামুখে ব্যান্ডেজ করে এসেছে কুয়াশা

এবার যা ঘটবে সবই মারু ডাকাতের কাণ্ড

দস্যুতা করে সপাসপ ঘরে ঢুকে যাবে

গ্যাবার্ডিন শেমিজের নিচে

কুমারী তার বুকের ম্যাপল ছিঁড়ে

হুলস্থুল ছড়িয়ে দেবে

বঙ্কিম বসন্তের সকল নিভৃত ডালপালায়

ফাগুন কী তবে দাঁতে কাটবে হিংসালতিকা

মনে বাঘ এসেছে অজুহাতে

শীতের সাদা গুজব খুলে দেবার মহিমায়

চৈত্রকে সাঁকোর ওপারে দাঁড় করিয়ে

সেও ষড়ঋতুর সঙ্গে করবে বৈঠকি সমঝোতা

 

তবে বৈশাখের পক্ষে জগতের কিছু স্বর্গীয়দের

রয়েছে যে যোগাযোগ

তা হয়তো শীতকাতুরেদের অনেকেই জানো না ।

 

 

আর্ট – ফারজানা মণি 

2 Comments

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *